Help our small company survive and its employees

by Sultan Mahmud in Dhaka, Dhaka Division, Bangladesh

Help our small company survive and its employees

£0

£26,000 target 32 days left
0% 0 supporters
Flexible funding – this project will receive all pledges made by 28th November 2020 at 5:25pm

I am rising money for Our Small Company and its employees it is very important to me please help me

Help our small company survive and its employees due to lockdown and economy. It is facing serious problems after the outbreak of Covid-19. Those who work for this organization and their families are in dire straits.

For years,  Baten, a city mark flooring solution applicator worker and father of  three children, has been running his family through flooring installation .in this ongoing pandemic lost his source of income as he couldn’t pay rent for the 3-wheeler CNG taxi. At present, Baten is taking loans to secure 2 meals a day (instead of the usual 3). But with no source of income, he is unable to buy family's needs  and is falling further into debt.

Hafizul, Father  of two children, has been working in city mark flooring solution  for 2 years. he is Epoxy flooring installer  to feed his family.  Due to the economic hardship brought about by the pandemic . Hafizul is now unable  to pay for rent and food because his company have no work.  

City Mark Flooring solution families are in a  situation without any safety net and government support. The promised stimulus hasn’t reached informal workers who are hardest hit by the pandemic. NGOs, too, are unable to tackle the deepening hunger, that is unfolding in Bangladesh. In this scenario, Cmfs has mobilized its own members and organized mutual aid projects of resource sharing to help each other. And now they are reaching out with their call for mutual aid beyond borders.

Your contribution will go towards supporting one month of food supplies (rice, lentils, potatoes, onion, salt, and oil), hygiene items (mask and soap) and office rent, working equipments and buy materials for the work.

 Please help

ভর্তা রাজনীতি বাদ দিয়ে বিরিয়ানী রাজনীতি করুন

October 19, 2020

 প্রতি টি ক্ষেত্রেই দুটি দিক বিবেচনা করা হয়,তেমনি রাজনীতিরও দুটি দিক রয়েছে,তার একটি হল সুস্থ আরেকটি হল অসুস্থ। উন্নত দেশ গুলোর রাজনীতি আর আমাদের রাজনীতির রাত আর দিনের মতো,তারা নিজেদের ভাগ্যের সাথে দেশের ভাগ্য বদলায় ! হ্যাঁ আমরা ও বদলাই তবে ভিন্ন আঙ্গিকে আর তা হল নিজেকেও ডুবাই এবং দেশের ভাব মূর্তিও ক্ষুণ্ণ করি। এ রকম বহু নজির আমাদের চোখের সামনে বর্তমান , যাই হোক এখন তো রাজনীতি হচ্ছে জীবনের অবিচ্ছেদ অংশ কারন এক সময় দুটো সিঙ্গারার জন্য তুখড় রোঁদে ছুটে বেরাতাম শহরের এক প্রান্ত হতে অন্য প্রান্ত আর এখন এক প্লেট তেহেরির জন্য তো জীবন ও দিয়ে দেই ! খুব সম্ভব ১৯৮৯ অথবা ১৯৯০ সাল একদিন কলেজে যাওয়ার সময় দেখি রাস্তা কাঁপিয়ে একটি মিছিল যাচ্ছে দুই একজন নেতা সামনে আর পিছনে গোটা বিশ হাফপ্যান্ট পরা খালি গাঁয়ে ১২ থেকে ১৫ বছরের ছেলে (হরতাল হরতাল) বলছে আর লাফাচ্ছে এর মধ্যেই একটি পুরাতন ক্যামেরা গলায় ঝুলিয়ে একজন তাদের সামনে গিয়ে জিজ্ঞাসা করছে তোমরা কিসের জন্য হরতাল করছ ? উত্তরে তারা বলে ছিল জানিনা আমাদের কইছে হরতাল হরতাল কইবি আর লাফাবি তাইলে দুই টা করে সিঙ্গারা পাইবি তাই কইতাছি হরতাল হরতাল । কথা না বাড়িয়ে চলুন মূল বক্তব্যে আসা যাক, আজকের বিষয় নিত্য প্রয়জনীয় দ্রব্য। 

পিয়াজ এবং আলু

 ==========

 কিছু দিন পূর্বে ২০০ টাকা আর এখন ৯০ থেকে ১০০ টাকা,৩০ টাকার আলু ৫০ টাকা কি অপূর্ব বাজার ব্যবস্থা ! খোজ খবর নিয়ে জানা গেলো সিন্ডিকেটের কথা, আরে ভাই শুধু ভালো সরকার আর কি করবে যদি আমরা ভালো না হই। গরীব মারার রাজনীতি এ দেশে বহু যুগ ধরে চলছে তাই এই ভর্তা নীতি চলছে এখন, তবে ভাব দেখে মনে হচ্ছে সামনে ভোজ্য তেল আর শুকনা মরিচ এবং লবণের দাম ও বাড়বে কারন পিয়াজ ও আলুর পর সিরিয়ালে এগুলাই আসে । যারা এগুলো করছেন তাদের প্রতি আমাদের আকুল আবেদন, প্রিয় ভাই ও বোন দয়া করে পোলার চাউল, গরু ছাগল এই সব এর দাম বাড়ান তাহলে অন্তত গরীব দেশের গরীবরা বেঁচে যাবে ।

-sultan

Help 'Help our small company survive and its employees' happen

Payment and personal details are protected